"যদি ৫০০০ মানুষ প্রাণ দিতে প্রস্তুত থাকে তাহলে আমি বাংলাদেশকে স্বাধীন করতে পারবো" - বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

আমার গায়ের কাপড়টি শেখ মুজিবকে দেখাবেন

৩নং সেক্টর ও “এস” ফোর্সের অধিনায়ক মেজর জেনারেল (অবঃ) শফিউল্লাহ। ১৯৭১-এর মুক্তিযুদ্ধে তাঁর স্মরণীয় একটি ঘটনা ———– ৭১-এর এপ্রিল মাসে আমার সেক্টরে আসে দৌলামিয়া। বাড়ি কুমিল্লার শালদা নদীর পাড়ে। আমি তাকে আমার সেক্টরে ট্রেনিং গ্রহণের সুযোগ দেই। ট্রেনিং-এর পরে তাকে একটি ফোর্সের সঙ্গে সিলেটে পাঠাই একটি এম্বুশ অপারেশনে। পরিকল্পনা ছিল আরো পড়ুন»
Mubaktaqi Raham Chand

  171 Posts

 sombororbund@gmail.com

  http://bbondhu.com/

মুজিবুর পিছু হটতে জানেনা

২৩শে এপ্রিল বিকাল ৩টায় পাকবাহিনী বেনাপোলের পূর্বদিকে কাগজ পুকুরে অবস্থিত ইপিআর-এর দুটি কোম্পানি নিয়ে গঠিত প্রতিরক্ষাব্যূহ আক্রমণ করে। প্রচন্ড আক্রমণের ফলে কোম্পানিদুটি পস্চাপসরণ করে বেনাপোলের পূর্ব সীমানায় রাস্তার দু’পাশে অবস্থান নেয়। পরদিন ভোর ৪টায় পাকবাহিনী আবার আক্রমণ চালায়। রাস্তার ডান দিকের কোম্পানিটি পিছু হটলে বাম দিকের কোম্পানি ভয়ংকর গোলাবর্ষণের মুখে আরো পড়ুন»
Mubaktaqi Raham Chand

  171 Posts

 sombororbund@gmail.com

  http://bbondhu.com/

শিশু গেরিলা যোদ্ধা ১ – মহম্মদ ইমরান

২৯ ডিসেম্বর ১৯৭১। সাংবাদিক রণজিৎ রায় ছিলেন বাংলাদেশের মাদারিপুর শহরে। ওদিন ২০০মুক্তিসেনার কুজকাওয়াজ হল সেখানে। খাকি পোশাক, হাতে অস্ত্র। কারো কারো হাতে অবশ্য অস্ত্র ছিলনা। চারপাশের জনতা তাদের সহর্ষ অভিনন্দন জানালো। কুচকাওয়াজে ২০০জন যোগ দিলেও সারা মহকুমায় মুক্তিফৌজের প্রায় ৬০০ গেরিলা সক্রিয় ছিল।মাদারিপুর মুক্ত করেছে তারাই। তাই সেদিনকার কুচকাওয়াজ মাদারিপুর আরো পড়ুন»
Mubaktaqi Raham Chand

  171 Posts

 sombororbund@gmail.com

  http://bbondhu.com/

হেমায়েত বাহিনী

হেমায়েত উদ্দিন পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ২য় ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টে চাকরি করতেন।১৯৭১ সালের মার্চের মাঝামাঝি তিনি ছুটিতে ছিলেন।মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে তিনি বিভিন্ন বাহিনীতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কয়েকজনকে নিয়ে একটি ছোট দল গঠন করেন। তিনি সর্বপ্রথম ১৭জন সঙ্গী নিয়ে ২৮মার্চ ভোর ৫টায় জয়দেবপুর ক্যান্টনমেন্ট দখল করেন।উক্ত ক্যান্টনমেন্ট ভেঙে শতাধিক অস্ত্র ও গোলাবারুদ নিয়ে যাত্রা শুরু আরো পড়ুন»
Mubaktaqi Raham Chand

  171 Posts

 sombororbund@gmail.com

  http://bbondhu.com/

পুরুষ মুক্তিযোদ্ধা ১ : কসীম উদ্দীন

১৯৭১ সালে ভুরুঙ্গমারীতে পাক হানাদার বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধে তরুণ মুক্তিযোদ্ধা কসীমউদ্দীন মারাত্নকভাবে আহত হন।তাঁর গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা।গুলিতে আঘাতপ্রাপ্ত একটা পা অপারেশন করে কেটে ফেলা হয়।রক্তের প্রয়োজন দেখা দিলে মুক্তিযোদ্ধারা চাঁদা তুলে সাত’শ টাকা সংগ্রহ করে জলপাইগুঁড়ি হাসপাতাল থেকে রক্ত কিনে আনে।তবুও কসীম উদ্দীনের বাঁচার কোনো সম্ভবনা ছিল না।তাই তাঁকে বলা আরো পড়ুন»
Mubaktaqi Raham Chand

  171 Posts

 sombororbund@gmail.com

  http://bbondhu.com/

ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমান- একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের প্রথম বীরশ্রেষ্ঠ

১৯৭১ সালের মার্চ মাসে বঙ্গ বন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে অসহযোগ আন্দোলন চলাকালে গ্রুপ ক্যাপ্টেন এ কে খন্দকারের নেতৃত্বে ঢাকায় অবস্থানকারী বাঙালি পাইলট ও টেকনিশিয়ানরা এ মর্মে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে যে, প্রয়োজন দেখা দিলে দেশমাতৃকার শৃঙ্খল মোচনের জন্য মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।তাই এ ব্যাপারে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। এই সংকটপূর্ণ আরো পড়ুন»
Mubaktaqi Raham Chand

  171 Posts

 sombororbund@gmail.com

  http://bbondhu.com/

উৎসর্গ

রাজশাহীর রোহনপুরের সেই অজ্ঞাত কিশোর যে পাকবাহিনীর শত অত্যাচারেও সহযোদ্ধাদের নাম প্রকাশ করেনি বরং স্বদেশের মাটি চুম্বন করে দৃপ্ত কণ্ঠে বলেছিল, আমি প্রস্তুত! চালাও গুলি! আমার প্রতিটি রক্তবিন্দু আমার পবিত্র ভূমির মুক্তিকে ত্বরানিত্ব করবে।

অনুরোধনামা

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সম্বন্ধে জানা আপনার মূল্যবান তথ্যগুলো আমাদের সাথে শেয়ার করুন।

যোগাযোগ :
মোবাইল: ০১৭১২৪৮৮৬৫১
মুবাকতাকি রহম চাঁদ ( সম্বর )
ধন্যবাদ



———————X———————-

———————X———————-

———————X———————-

———————X———————-